মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

ঐতিহাসিক দিবর দিঘি

নওগাঁ জেলা পত্নীতলা উপজেলার দিবর ইউনিয়নের নওগাঁ-সাপাহার রাসত্মার উত্তর পার্শ্বে ২কি:মি: দূরে অবস্থিত। তফসিল: দিবর মৌজার খতিয়ান নং-০১,দাগ নং-হাল ২৩১৪,জমির পরিমান:দিঘীর পাড় সহ ১৯.২৪ একর।

বর্ণনা: পত্নীতলা উপজেলার ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা (দিবর দিঘী ও দিবর দিঘীতে অবস্থিত দিব্যক জয়স্থম্ভ রয়েছে। নওগাঁ জেলার একটি ঐতিহাসিক নিদর্শন পত্নীতলা উপজেলা দিবর দিঘীর মধ্যে স্থানে অবস্থিত দিব্যক জয়স্থম্ভ । এ দিঘী স্থানিয় জনগনের কাছে কর্মকারের জলাশয়ের নামে পরিচিত।দিঘীটির জলাশয়ের আয়তন প্রায় ৬০ বিঘা জমির উপরে অবস্থিত।দিবর দিঘীর মধ্যখানি অবস্থিত  আটকোণ বিশিষ্ট গ্রানাইট পাথরের এতবড়  সত্মম্ভ বাংলাদেশে বিরল।এই সত্মম্ভের উচ্চতা ৩১ ফুট আট ইঞ্চি।পরিদর্শনের সময়ে মাপ অনুযায়ী পানি নিচের অংশ ৬ ফুট ৩ ইঞ্চি এবং পানির উপরের অংশ ২৫ ফুট ৫ ইঞ্চি।এর ব্যাস ১০ ফুট ৪ ইঞ্চি ;প্রতিটি কোণের পরিধি ১ ফুট ৩.৫ ইঞ্চি।এই সত্মম্ভের কোন লিপি নেই। সত্মম্ভের উপরিভাগ খাঁজ কাটা অলঙ্করণ দ্বারা সুশোভিত ।

          দিবর দিঘীর মধ্যস্থিত জয়সত্মম্ভ প্রতিষ্টার উদ্দেশ্যে সম্পর্কে তিনটি পৃথক বিবরন পাওয়া যায়।

এক. দ্বিতীয় মহি পালকে পরাজিত ও হত্যা করার সাফল্যকে স্মরণীয় করার উদ্দেশ্যে দিব্যক এ জয়সত্মম্ভ নির্মান করান । দিনেশ চন্দ্র সেন ’’বৃহৎ বঙ্গে’’ উলেস্নখ করেছেন ’’কৈবর্তরাজ ভীমের খুলস্ন পিতামহত দিবেবাক দ্বিতীয় মহিপালকে যুদ্ধে পরাজিত ও নিহত করে বিজয় উলস্নাসে যে সত্মম্ভ উত্থাপিত করেছিলেন তা এখনো রাজশাহী জেলার এক দিঘীর উপরে মসত্মক উত্তোলন করে বিদ্যমান ।’’

দুই. দিব্যকের রাজত্ব কালে পাল যুবরাজ রাম পাল বরেন্দ্র উদ্ধারের চেষ্টা করে দিব্যকের নিকট পরাজিত হন।দিব্যক এই সাফল্যের স্মৃতি রÿার উদ্দেশ্যে দিঘীর মধ্যস্থিত এ সত্মম্ভটি নির্মাণ করেন। সন্ধাকর নন্দীর রামচরিতের পরিচিতি পর্বে অনুবাদক বিজয় সত্মম্ভটি নির্মাণের কারন সম্প©র্ক নিমণ লিখিত বিবরণ লিপিবদ্ধ করেছেন:’’ পূর্ব বঙ্গের ভোজ বর্মার তাম্রশাসন হইতে জানা দিব্যের বীরত্ব খ্যাতি তৎকালে উপমার বিষয় ছিল।অত্যল্পাকালেই বরেন্দ্রী দিব্যের রÿণাধীন থাকে। পূর্বোদ্ধৃত মনহলি লিপির ১৪শ  শেস্নাক ও রামচরিতের ১/২৯ শেস্নাক) একত্রে পাঠ করিলে জানাযায় দিব্যের রাজত্বকালে রামপাল(১০৮২-১১২৪) একবার পিতৃরাজ্য উদ্ধারে সচেষ্ট হইয়া ব্যর্থকাম হন।দিনাজপুর জেলার (বর্তমান নওগাঁ)দিবর দিঘীর নামক একটি জলাশয় ও তন্মধ্যস্থিত শিলাসত্মম্ভ আজ তার স্মৃতি রÿা করিতেছে ।’’

তিন. ভীম এ সত্মম্ভটি নির্মান করেন এবং পিতৃব্য দিব্যকের স্মৃতি রÿার্থে  সত্মম্ভটি তার নামে উৎসর্গ করেন। প্রফেসর শিরীন আখতারের বিবরনে তার সমর্থন পাওয়া যায়।’’It is more likely that Bhima,the modt iffustrious ruler who succeeded in consolidating the Kaivarta rule in northen Bengal erected the pillar as a mark of victory and dedicated his newly dug tank to Dibya,his ancestor. the unusual setting of the pillar;i.e.its situation in the middle of tank indicates ,that it was built over there in order to make it something special or to from future destruction."